পিএসজির ফ্রেঞ্চ সুপারকাপ জয়ের উৎসবে নেইমারের অভিনয়

পিএসজির ফ্রেঞ্চ সুপারকাপ জয়ের উৎসবে নেইমারের অভিনয়

২০১৮ সারের রাশিয়া বিশ্বকাপে নেইমারকে নিয়ে আলোচনা, সমালোচনা কম হয়নি। বিশ্বকাপ শুরুর আগে ব্রাজিল দল ছিল অন্যতম শিরোপার দাবিদার। কিন্তু ব্রাজিলবিশ্বের কোটি কোটি সমর্থককে হতাশ করে কোয়ার্টার ফাইনালে বিধায় নেয়। তবে রাশিয়া বিশ্বকাপকে মানুষ মনে রাখবে নেইমারের মাঠে “ড্রাইভ” নিয়ে। প্রায় প্রতিটি খেলায়ই নেইমার মাঠে এমন ভাবে পরে যেতেন, মনে হতো তাকি খুবই কঠিন আঘাত করা হয়েছে-যা অনেকের চোখে অভিনয় হিসেবে প্রতিয়মান হত। পরবর্তীতে নেইমার একটি বিজ্ঞাপন বানিয়ে এর জবাব দিতে চেয়েছিলেন-যার উল্টো অভিযোগ উঠেছে এ আবেগ দিয়ে খেলে বিজ্ঞাপন বানিয়ে কোটি টাকা কামিয়ে নেওয়ার। এ-ই যখন অবস্থা, তখন সবকিছু উপভোগ করাই তো ভালো! নেইমার নিজেও এখন চোটের অভিনয় করে মজা নিচ্ছেন!

গত শনিবার ৪ আগস্ট মোনাকোকে ৪-০ গোলে হারিয়ে ফ্রেঞ্চ সুপারকাপ জিতে নেয় নেইমারের পিএসজি। মৌসুম শুরু করে একতরফা জয় আর ট্রফি দিয়ে। খেলা শেষে শিরোপা উদ্‌যাপনের সময় ঘটে এমন একটি ঘটনা যা পরবর্তীতে যথেস্ট হাস্যরসের খোরাক যোগায়। ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নামেন নেইমার। গত ফেব্রুয়ারিতে পায়ের পাতায় চোট পাওয়ার পর পিএসজির হয়ে এটাই ছিল তাঁর প্রথম ম্যাচ এবং খেলায় নেইমার অবশ্য কোন গোল দিতে পারেননি। জোড়া গোল করেছেন অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়া আর বাকি দুই গোল করেন ক্রিস্তোফার এনকুনকু ও টিমোথি উইয়্যাহর।

গোল না করলেও শিরোপা জয়ের উৎসবের কেন্দ্রে অবশ্য নেইমারই ছিলেন। কাপ জয়ের পর বিজয়মঞ্চে দাঁড়িয়ে উল্লাস করছিলেন পিএসজির খেলোয়াড়েরা। ট্রফিটা উঁচিয়ে ধরে উল্লাস করছিলেন থিয়াগো সিলভাসহ বাকিরা। নেইমারের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন মার্কুইনহোস। উল্লাসের সময় ভিড়ের ঠাসাঠাসিতে নেইমারের পায়ে বুট দিয়ে পাড়া দেন এই ব্রাজিলিয়ান সতীর্থ। ক্লাব সতীর্থের পায়ের পাড়া খেয়ে বিকট চিৎকার দিয়ে ওঠেন নেইমার, শুধু তাই নয় মুখ যেন ব্যথায় নীল হয়ে যাচ্ছিল। উৎসরের উল্লাস ঢাকা পড়ে যায় নেইমারের চিৎকারের আওয়াজ। মার্কুইনহোস তখন খুবই বিচলিত হয়ে পড়েন, কি করবেন কিছুই বুঝতে পারছিলেন না, পরবর্তীতে সম্বিৎ ফিরে পেয়ে সঙ্গে সঙ্গেই নেইমারের পা ধরে তাঁর সেবার জন্য উঠেপড়ে লেগেছিলেন! আর ঠিক তখনই ফিক করে হেসে ওঠেন রাশিয়া বিশ্বকাপের সেরা অভিনেতা নেইমার। আসলে গোটা ব্যাপারটাই যে ছিল অভিনয়! শুধু অভিনয় বললে ভুল হবে-একধম রিয়েল লাইফ অভিনয়।

নেইমারের এ অসাধারণ অভিনয় দেখে নেইমারেরই ক্লাব সতীর্থ মার্কো ভেরাত্তি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মজা নিয়েছেন এক চোট। মার্কুইনহোসের পায়ের পাড়া খাওয়ার পর নেইমারের অভিব্যক্তির ছবির সঙ্গে ছয়টি ইমোজি জুড়ে দিয়ে পোস্ট করেছেন ইতালিয়ান এই মিডফিল্ডার। ইমোজিগুলো হাসতে হাসতে কেঁদে ফেলার!